সোমবার, ১৭ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, সকাল ৭:১৫ |
শিরোনামঃ
পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন নান্দাইল উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শফিউল ইসলাম রাসেল হতদরিদ্রের মাঝে ঈদ সামগ্রী দিলেন এমপি সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী  রাঙ্গাবালী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফ, সম্পাদক জামিল  নরসিংদীর শিবপুরে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ  সীতাকুণ্ডের কুমিরায় গঙ্গাপূজায় গিয়ে সাগরে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান- শ্যামল  মাদক একটি অভিশপ্ত জীবন আলহাজ্ব সাখাওয়াৎ হোসেন সুমন  পবিত্র ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আলহাজ্ব শাহ মঞ্জুর মোরশেদ চৌধুরী  যুবলীগ কর্মী আজাদ হত্যাকান্ড; আসামীরা ১১ মাস বাড়ি ছাড়া! কালিয়ায় দুই শতাধিক পরিবার বাড়িতে ঈদ করতে পারছে না  নোয়াখালীতে সৌদিআরব এর সাথে মিল রেখে কিছু সংখ্যক জাগায় ঈদুল আজহা অনুষ্ঠিত হয়। 
  • HOME
  • মতামত >> সম্পাদকীয়
  • স্বাধীনতা যুদ্ধের আদর্শিক বীর মুক্তিযোদ্ধার দেশাত্মবোধ ও দেশপ্রেমের হুংকার
  • স্বাধীনতা যুদ্ধের আদর্শিক বীর মুক্তিযোদ্ধার দেশাত্মবোধ ও দেশপ্রেমের হুংকার

    দৈনিক দেশ প্রতিদিন
    সংবাদটি শেয়ার করুন

    জাহারুল ইসলাম জীবন

    স্টাফ রিপোর্টার, অনুসন্ধানী প্রতিবেদন মেহেরপুর থেকেঃ-

    বিদ্যুৎ বিভাগের সর্বস্তরে গাফিলতি এবং ব্যাপক দূনীতি কে দায়ী করে একজন বীর সেনানি মুক্তিযোদ্ধা দায়িত্বরত বিদ্যুৎ বিভাগের প্রকৌশলীকে বলেন, ‘’আপনার ঘুষ খাওয়া ও দূর্নীতির জন্য দেশ স্বাধীন করিনি-সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করুন, না করলে চাকুরী হইতে রিজাইন দিয়ে চলে যাবেন।”

    এই সংবাদটি বর্তমান সময়ে ব্যাপক ভাইরাল হওয়ায় দেশের সর্বস্তরে সাধারন জনগণের মূখে মূখে আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠেছে এবং দেশে চলমান নানামুখী দুর্নীতি ও অসৎ অপকর্মের যৌক্তিক দাবির জরুরী ভিত্তিতে দেশের সরকার প্রধানের কাছে প্রতিহত পূর্বক জরুরিভাবে সমাধান করার কথা জোরালো ভাবে সাধারন জনতার বজ্রকন্ঠে দাবী উঠে আসেছে।


    নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অধিকাংশ সাধারণ জনতার তথ্য মতে এই বীর বিজয়ী মুক্তিযুদ্ধা ও সময়ের সাহসী সন্তান কে স্যালুট জানানো সহ তিনার ঘটমান যৌতিক প্রতিবাদের সঙ্গে সমগ্র দেশবাসী একত্বতার সহীত স্লোগান তুলে দেশের মর্ধ্যে প্রতিনিয়ত ঘটমান পরিস্থিতিকে এইভাবেই মন্তব্য করছেন >>রাজাকার ও কালো টাকায় কেনা ভূয়া সনদপত্র ধারী হাইব্রিড রিফিউজি অতি চালাক সুযোগ সন্ধানী দালাল মুক্তিযুদ্ধা নামধারী এবং রাজাকারের সন্তানেরা আজ গেজেট ভূক্ত মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধার ভাতা সহ সমস্ত সুযোগ সুবিধা গ্রহণকারী ! আর প্রকৃত সনদধারী মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তানেরা আজ অবহেলিত দিনমুজুর রিক্সা চালক! যাহাদের দিনপাত চলে অতিব দুঃখের সঙ্গে দারিদ্রতার কুড়াল গ্রাসে দিন হীন ভাবে! আর দুঃখ জনক হলেও সত্য যে, প্রকৃত সনদ ধারী মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধের বীর এবং শহীদ মুক্তিযোদ্ধারা আজ প্রশাসনের দরকষাকষীর ফাইলে ঘুষ বাণিজ্যে গেজেটের নামে ফাইল বন্দী এবং ঘূর্ণিওমান অবস্থায় পড়ে রয়েছে !

    প্রকৃত রাজনৈতিক ও তৃণমূল জননেতারা আজ গরীব এবং অবহেলিত ! অবৈধ,অসৎ,দূর্নীতিবাজ অশিক্ষিত বা স্বল্পশিক্ষিত কালো টাকার মালিক ও বিতর্কিত নীচু বংশীয় ব্যক্তিগণ আজ জননেতা ও সমাজপতি সহ দেশের প্রতিনিধি ! সন্ত্রাসী ও মাদকসেবী আজ ছাত্রনেতা ও যুবনেতা এবং দলীয় ক্যাডার এবং উচ্চতর সুপারিশকারী প্রশাসনের দালাল ! দুঃখজনক হলেও সত্য যাহাদের কথায় আজ দেশ ও দেশের প্রশাসন চলে ! বড় বড় মন্ত্রী, এমপি সহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ থাকে নিরব নিশ্চুপ! দেশের পরিকল্পনাবিদদের দেশ উন্নয়নের পরিকল্পনা ও পরিকল্পনা ধরণ এবং তাহার বাস্তবায়ন দেখে ও কথা এবং বক্তব্য শুনে সাধারণ তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্ররাও খিলখিল করে হাসে !

    এ দেশের জন্য হতাশা এখানেই ? যাহার কারনে দেশ হচ্ছে ধ্বংস,জাতি আজ দিশেহারা!? আত্ম মানবতার মানবিক সত্য বিবেক আজ নিরুপায় অবস্থায় বন্দি!

    সকলের সম্মেলিত ঐকান্তিক প্রচেষ্টা আর দেশ প্রেমের আদর্শিক অনুপ্রেরণায় মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও দেশের সর্বস্তরে বর্তমান চলমান বাস্তবিক অন্যায় ও অরাজকতার ব্যাপক দুর্নীতি সহ জুলুম নির্যাতনের রাম-রাজত্বের অসহনীয় দুর্নীতি-পরায়ণতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান এবং সময়ের দাবীতে বর্তমান সার্বিক পরিস্থিতিতে দাঁড়াতেই হবে সকলেকে ন্যায় ও নীতিমালার আদর্শে ।
    মূখে শুধু দেশ প্রেমিক ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক বলে বক্তব্য দিলে হবে না,বাস্তবে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক ও দেশের প্রতি শ্রদ্ধানশীল এবং দেশ গঠনের সঠিক দেশপ্রেমিক হিসেবে সকল অন্যায় ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে দাঁতভাঙ্গা জবাব সহ দেশের ভিতরে অবস্থানরত সকল অসৎ ঘুষখোর, দুর্নীতি পরায়ণ, দূর্নীতিবাজ,দেশ বিরোধী, ক্ষমতার চরম অপব্যবহারকারী দালাল চক্র ও গোলামীর চামচা-দের মূল শিকড় উপড়িয়ে ফেলুন এবং ফেলতেই হবে, দেশ ও দেশের মানুষকে বাঁচানোর স্বার্থে। ধরা পড়লেই দোষী আর ধরা না পড়লেই নির্দোষ! দোষী সাব্যস্ত হইলেই রাজনৈতিক দলের কেউ নয় এবং দেশের আইন কানুন তাহার ব্যাপারে অগ্রিম কিছুই জানতেন না,কিন্তু এখন জেনেছেন এই এই নীতিগত চরম সিদ্ধান্তগত বিভ্রান্তকর পরিস্থিতি হইতে দেশের সকল শ্রেণীর কর্তাগণকে আদর্শিক ও দেশের স্বার্থে মূল ধারায় বাহির হয়ে আসতে হবে দেশ গঠনের লক্ষ্যে এবং দেশের স্বার্থে। আদর্শ ও সত্যের অনুপ্রেরণায় হৃদয়িক দৃঢ়তার ঈমানী শক্তি ও সাহস নিয়ে দেশ প্রেমিকের ভূমিকার প্রকৃত বাস্তবতায় সকলকে একত্রে দলমত নির্বিশেষে এগিয়ে আসতে হবে এক সঙ্গে একই কাতারে প্রকৃত দেশপ্রেমিক হয়ে ।

    দেশের চরম ক্রান্তিকাল ও সঠিক ভাবে দেশ গঠনের জন্য, সকলেই একসঙ্গে স্লোগান তুলুন এবং তুলতেই হবে দেশের ও দেশের সাধারণ জনগণের স্বার্থে এবং আমাদের কষ্টার্জিত মুক্তিযুদ্ধে অর্জিত স্বাধীনতা ও স্বাধীন বাংলাদেশকে ও বাংলাদেশের মানুষকে সুষ্ঠু সুন্দর স্বাভাবিকভাবে বাঁচার অধিকার সহ প্রকৃত নাগরিকের অধিকার সু-নিশ্চিত করতে ও দেশ বাঁচাতে এবং এই বাংলাদেশকে সুন্দর স্বাভাবিক ও বিশ্বমানের সঙ্গে একাত্বতার সহিত অভিন্ন ডিজিটালাইজ আধুনিক ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে অবশ্যই বাংলাদেশের সর্বস্তরের অধিদপ্তর/পরিদপ্তরের সকল উৎস থেকে অসৎ দুর্নীতিবাজ, অন্যায় ও অসৎ অপকর্মের সঙ্গে যাহারা জড়িত তাদের রুখে দিতে হবে এবং নির্যাতিত মানুষের নির্যাতন রক্ষা কল্পে যাহারা অতন্ত্র প্রহরীর দায়িত্বে চাকুরীরত রয়েছেন তাহারা যেন নিজেরাই রক্ষক হয়ে ভক্ষকে পরিনিত না হয়,নিজেরা সন্ত্রাসী দমনের নামে নিজেরাই সন্ত্রাসী যেন না সাজতে পারে,হত্যা দমনের নামে তারা যেন নিজেরাই হত্যা ও গুম কারক না হয়! দূর্নীতি ও মাদক এর কড়াল গ্রাস ঠেঁকাতে গিয়ে নিজেরাই যেনো দূর্নীতিবাজ ও মাদক সম্রাট না হয়ে ওঠে।

     

    দেশ রক্ষার অতন্ত্র প্রহরী নামীয় প্রতিষ্ঠানের কর্মরত ও পোষাকের সাইন বোর্ডে আবৃত হয়ে প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তার চাঁদরে নিজেদেরকে প্রতিষ্ঠানের আবারনে আবৃত করিয়া নিজেরাই ধ্বংসাত্মক পাশবিক নির্যাতন, গুম হত্যার মত জঘন্যতম কাজে যেন আর না করিতে পারে, আর যাহারা এই সকল কর্মকান্ডে কর্মকর্তা কর্মচারী সেঁজে জড়িত তাদেরকে শক্ত হাতে প্রতিহত করতেই হবে এবং তাদের এই অপকর্ম হইতে দেশের সাধারণ জনগণকে অবশ্যই নিরাপত্তা দেওয়ার দৃঢ় সংকল্পে দেশের অতন্ত্র প্রহরী হয়ে প্রজাতন্ত্রের একজন সৎ নিষ্ঠা ও পক্ষপাত মুক্ত প্রজাতন্ত্রের রক্ষাকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারী হিসেবে নিজেদেরকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারে এবং যাহারা বিভিন্ন অপকর্মকর কাজের সঙ্গে জড়িত ও নামধারী তাদেরকে অবশ্যই দেশের প্রচলিত আইনের ধারায় বিচারের মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে তাদের বিচার সহ শাস্তির বিধান নিশ্চিত করতে হবে এবং বিতারিত করতেই হবে তাদের সকল অপকর্ম। দেশ থেকে সকল অসৎ দুর্নীতি যুক্ত অপকর্ম চিরোতরে নিপাত যাক এই স্লোগানে তাদেরকে আবৃত ও চাকুরীর শর্তে তারা যেন যথাযথ আইনের বলয়ের মধ্যে থাকে এবং তাদেরকে যেন রাখা যায় সেই ব্যবস্থা করিতে হইবে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার প্রকৃত চেতনায় বাংলাদেশ মুক্তি পাক, লাল সবুজের পতাকার আত্মমর্যাদার সম্মানে নিরাপদ ও শান্তিময় দেশ হিসেবে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারে আত্মসম্মানে বিশ্ব দরবারে। সাধারণ জনগণের কষ্টার্জিত অর্থ যেন আর অপকর্মের দ্বারা ব্যক্তি স্বার্থে ভুলোন্ডিত না হয় এবং দেশের বাইরে আর যেন অবৈধভাবে কোন কালো টাকা পাচার না হয় সেই ব্যবস্থা কঠোরভাবে করতে হবে। সকলকেই আন্তরিক সততা ও দায়িত্বশীলতার অঙ্গীকার এবং দেশ প্রেমের রক্ষক হিসাবে সচেতনতার সহিত এগিয়ে আসতে হবে ।

    দেশের ভিতরে প্রতিষ্ঠিত ও পরিচালিত বিদেশি কোম্পানিগুলো যেমন পল্লী বিদ্যুৎ ও মোবাইল কোম্পানি সহ বিভিন্ন কোম্পানীর যাবতীয় অপকর্ম ও নিজেশ্ব সফটওয়্যার এর মাধ্যমে প্রতারণামূলক টেকনোলজির ব্যবহারের করাল গ্রাস হইতে সাধারণ জনতার কষ্টার্জিত অর্থ বা টাকা যেন তারা আর বিভিন্ন পলিসি ও নানান পন্থা অবলম্বন পূর্বক অতিরিক্ত মাত্রায় ক্ষতিগ্রস্ত না করিতে পারে এবং দেশের প্রচলিত আইন আদালত বিরোধী রক্ত চুক্ষের শাসন এবং রক্ত চোষা বাদুড়ের ন্যায়, দেশ ও দেশের মানুষের কষ্টার্জিত টাকা বেআইনি ভাবে আর যেন চুষে খেতে না পারে এবং দেশবিরোধী ও দেশ ধ্বংসকারী ব্রিটিশ এবং পাকিস্তানি স্বৈরশাসগণের ষড়যন্ত্রের ন্যায় সকল শোষণ ও নিপীড়নের সহ এক কেন্দ্রিক নিজস্ব আদালত গঠনের মাধ্যমে একতরফা বিচারিক কার্যক্রম ও প্রশাসনিক সকল স্তরে দাম্ভিকতার দুঃসাহসিক অপব্যবহারের যেন আর না করিতে পারে তাহার বিরুদ্ধে দেশবাসী আজ সৌচ্চার ভূমিকায় অবতীর্ণ হইয়াছেন এবং এদের বিরুদ্ধে দেশের প্রচলিত আইনের ধারাই কঠোরভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ সহ তাদেরকে এবং তাদের প্রতিষ্ঠানকে বাংলাদেশের প্রচলিত আইনের ধারায় নিয়ে এসে ,তাদের এবং তাদের প্রতিষ্ঠানকে এবং তাদের ব্যবহারকে জনগণের সেবকের দৌঁড় গোড়ায় নিয়ে আসতে হবে। তাহারা এই বাংলাদেশের প্রজাতন্ত্রের একজন কর্মচারী ও জনগণের টাকায় তারা চাকরি রত একজন জনগণের চাকর এই কথাটি তাদেরকে পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে মানাইতে বাধ্য বাধকতার ভিতরে অবশ্যই নিয়ে আসতে হবে।

    জনগণের সেবক হিসাবে তাদেরকে এবং তাদের ব্যবহারকে জনগণের কল্যাণে নিবেদিত প্রাণ হিসেবে দ্বায়িত্ব পালনে একান্তই বাধ্যবাধকতার ভিতর নিয়ে দেশের প্রচলিত আইনিক ধারার আবারনে জবাব দিহিতা ও সচ্ছতার আবারণে দেশে ও দেশের সর্ব সাধারণ জনগণের সঠিক সেবক হিসাবে দ্বায়িত্বতার মোড়কে আবৃত করে রাখতে হবে দেশ ও দেশের মানুষের কল্যাণ ও স্বার্থ্যে। আমরা বাংলাদেশী, তাই আমরা বাংলাদেশের জনগন এবং আমাদের বাংলাদেশ কাহারো চাকর ও গোলামী সহ দেশের প্রকৃত স্বার্থ্যকে বিক্রি বা জলাঞ্জলি দেবার জন্য বা করার জন্য বঙ্গবন্ধুর আদেশে মহান মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযুদ্ধের আত্মদানে লাখো শহীদের রক্তের ও চার লক্ষ্য মা বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে বীর সেনানী মুক্তিযুদ্ধারা দেশ স্বাধীন করে নাই।দেশের স্বার্থকে বিকিয়ে দিয়ে এই দেশকে ক্ষতিগ্রস্ত যারা করিবেন তাদের এই দেশে কোন স্থান বা ঠাঁই হবে না এবং এই দেশের মাটিতে তাদেরকে অন্যায়কারী বীর দাপটে ক্ষমতাধারী প্রভাব বিস্তার কারী হিসেবে তাদেরকে আর সুস্থ্য ভাবে জুলুমবাঁজ ও জুলুমবাঁজি করিতে দিবো না।

    এই অঙ্গীকার নিয়ে আমরা আসুন আমাদের এই বীর মুক্তিযোদ্ধার সঙ্গে একত্বতা ও সহমর্মিতায় এক সাথে শ্লোগান ও বীরত্বের দাবিদার দেশের জনগণ ও দেশপ্রেমিক হয়ে হুংকারের সহিক আওয়াজ তুলি এবং এই দেশকে রক্ষাকল্পে দেশকে আগামী প্রজন্মের জন্য এবং আধুনিক ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসাবে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে বাংলাদেশকে দুর্নীতি ও অপশক্তির হাত থেকে মুক্ত করে সঠিক ধারায় এই বাংলাদেশকে যেন রেখে যেতে পারি এই অঙ্গীকার আমাদের সকলের হোক, এই প্রত্যাশায় আমরা বাঙালি, আমরাই বাংলাদেশের সন্তান এবং স্বাধীন সার্বভৌমত্ব এই দেশ আমাদের,আমরাই এই দেশের সাধারণ নাগরিক এটাই আমাদের গর্ভ শক্তি ও শক্তির স্তম্ভ এবং দেশ বাঁচানো বিজয়ী স্লোগান। আমরা বাঙালি, বাংলা আমার গৌরবের গৌরব উজ্জ্বল মাতৃভাষা ,তাই আমরা বীর সেনানী বর্তমান ও ভবিষ্যৎতের সাহসী ও গর্বিত মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত বাঙালি ও বাংলাদেশী !

    দেশের আপামর সাধারণ জনতার বজ্রকন্ঠে প্রতিবাদ ও প্রতিহতকরণর জন্য উপরোক্ত বক্তব্য গুলো এইভাবে উঠে এসেছে ,যৌক্তিকতা এবং সত্যতাসহ বর্তমান চলমান দেশের মধ্যে নানামুখী অরাজকতার জ্বালাময়ী গঠনমূলক দাবিগুলো এই ভাবেই উঠে এসেছে।

    সংবাদটি শেয়ার করুন

    Read More..

    সাপের নাগমণি হয়? বিজ্ঞান যা বলেছে
    ৪ দিনের সফরে পাবনা যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি
    দেশের তরুণ প্রজন্মের খবর কী?
    ❝টাকা তোমার ঠিকই, কিন্তু সম্পদ সমাজের❞
    আজ সূর্যগ্রহণ, পৃথিবীর ৩টি দেশ রাতের মত অন্ধকার থাকবে
    কমল এলপি গ্যাসের দাম , সন্ধ্যা থেকে কার্যকর
    তথ্য প্রাপ্তিতে হয়রানি বন্ধে তথ্য কমিশনকে বেশি তৎপর হওয়ার নির্দেশ রাষ্ট্রপতির
    দেশকে এগিয়ে নিতে সাংবাদিকরা বড় ভূমিকা রাখবে: তোফায়েল আহমেদ
    নোটিশ :